সোমবার , ২৯ নভেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » খেলা » স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে চড়া মূল্য দিলো বাংলাদেশ


স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে চড়া মূল্য দিলো বাংলাদেশ




ফটো নিউজ ২৪ : 18/10/2021


-->

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর ক্রিকেটার থেকে শুরু করে কোচিং স্টাফ, নির্বাচক ও বিসিবির পরিচালনা পর্ষদ- প্রত্যেকেই তৃপ্ত ছিলেন। তৃপ্তির মাত্রা এতই ছিল যে, স্লো ও টার্নিং উইকেট বানিয়ে এই সাফল্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কতটা কাজে দেবে? এমন প্রশ্ন শুনেও সংশ্লিষ্টরা বিরক্তি ফুটিয়ে তুলেন চোখে-মুখে! ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস! স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে চড়া মূল্য দিয়েই মাহমুদউল্লাহর দলকে বুঝতে হয়েছে- আল আমিরাত আসলে মিরপুর নয়।

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে স্লো উইকেটে কোন ব্যাটসম্যানই ছন্দে ছিলেন না। ম্যাচ জয়ের আত্মবিশ্বাস সঙ্গী হলেও ব্যাটাররা ছিলেন পুরোপুরি নিষ্প্রভ। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হারার পর বাংলাদেশ দল বুঝলো, যে সাফল্য নিখুঁত নয়, তাতে আসলে তৃপ্তি পেতে নেই।

যার ফলে জয়ের অভ্যাস তৈরি হলেও ‘ভঙ্গুর’ এক আত্মবিশ্বাস সঙ্গী হয়েছিল মাহমুদউল্লাহদের। ভঙ্গুর ছিল বলেই শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ার্মআপ ম্যাচ হেরে তাতে ফাটল ধরেছিল। মাহমুদউল্লাহ অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী ছিলেন বলে ওই হার তাকে বিন্দুমাত্র বিচলিত করতে পারেনি। কিন্তু ফলটা তো হাতে নাতেই পেয়েছে লাল-সবুজরা। রবিবার স্কটিশদের বিপক্ষে ৬ রানের হার মাহমুদউল্লাহদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো, অতীত বদলের মিশনে কতটা প্রস্তুত তারা।

প্রস্তুতির ঘাটতিটা বেশি ব্যাটারদেরই। টানা স্লো উইকেটে খেলতে খেলতে ব্যাটারদের আত্মবিশ্বাস যেন তলানীতে গিয়ে ঠেকেছে। হুট করে স্পোর্টিং উইকেটে খেলতে নেমে ব্যাটারদের আল আমিরাতকে মিরপুর ভেবে বসাটাইতো স্বাভাবিক। এই যেমন অভিজ্ঞ সাকিব, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহরাও পারেননি নিজেদের সহজাত খেলাটা খেলতে। স্কটিশদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ব্যাটিং লাইনআপে শুরুতেই দেখা দেয় গলদ।

বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের হয়ে ১৬ টি-টোয়েন্টির সব ম্যাচেই মাঠে নেমেছিলেন মোহাম্মদ নাঈম। অথচ বিশ্বকাপে আস্থা রাখা হলো সৌম্যর ওপর! যুক্তি দেখানো হয় তিনি দুটি ওয়ার্মআপ ম্যাচে ভালো করেছেন। এখন তার ব্যর্থতা আরেকবার প্রশ্নবিদ্ধ করলো টিম ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্তকে।

দুই ওপেনারের ব্যর্থতার দিনে অভিজ্ঞ তিন ব্যাটসম্যানও দলের হাল ধরতে পারেননি। মাহমুদউল্লাহ যে ফিট নন, সেটি ছিল স্পষ্ট। সাকিব ফর্মে নেই, আইপিএল থেকেই ব্যাটে-বলে পারফেক্ট সংযোগ করতে পারছেন না। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে স্কুপ করতে গিয়ে আউট হয়েছেন মুশফিক। ফলে লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ নিয়েও কোন লাভ হচ্ছে না।

ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ নিজেও হতাশা লুকিয়ে রাখতে পারলেন না। ব্যাটিং নিয়ে তার যে চিন্তা, সেটি অকপটেই স্বীকার করলেন, ‘অবশ্যই আমি হতাশ। এই মুহূর্তে আমার হতাশ না হয়ে কোন উপায়ও নেই। যেটা বারবারই বলা লাগছে, ব্যাটিংটাই আমাদের মূল চিন্তার বিষয়। আমাদের ভালো ব্যাটিং করতে হবে।’

রবিবার স্কটিশদের বিপক্ষে এমন হারের পর বাংলাদেশের মূল পর্বে যাওয়া নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়ে গেছে। এখন মূল পর্বে যেতে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই মাহমুদউল্লাহদের। শুধু জিতলেই হবে না, রানরেটও বিবেচনায় নিতে হবে। তবে রান রেটের জটিল হিসেব নিকাশ থেকে তাদের বাঁচাতে পারে স্কটল্যান্ড। যদি তারা ওমানকে হারিয়ে দেয়, তাহলে দুটো ম্যাচ জিতলেই বাংলাদেশ চলে যাবে সুপার-১২-এ। তবে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে জিততে হলে মিরপুরের অভ্যাস থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। নয়তো মরুর বুকে ফুল ফোটানোর মিশন নিয়ে ওমান যাওয়া বাংলাদেশ দলকে ক্ষত-বিক্ষত হয়েই দেশে ফিরতে হবে।


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com