বৃহস্পতিবার , ২১ অক্টোবর ২০২১


টি-টোয়েন্টিতে এমন উইকেটে খেলা কঠিন: লিটন দাস




ফটো নিউজ ২৪ : 06/09/2021


-->

অস্ট্রেলিয়া সিরিজের ধারাবাহিকতায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও স্পিনিং আর টার্নিং উইকেটে ম্যাচ খেলছে বাংলাদেশ। কিন্তু এমন কন্ডিশনে শেষ ৮ ম্যাচের ৬টি জিতলেও বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে ছিল রান খরা। এতেই বোঝা যাচ্ছে, কতটা সংগ্রাম করতে হচ্ছে তাদের। ভিডিও বার্তায় লিটন দাসও স্বীকার করলেন যে, টি-টোয়েন্টিতে এমন উইকেটে খেলা কঠিন।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ ১৪১ রান করেছিল। গত ৮ ম্যাচে এটাই ছিল সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর। এর পরেও এই স্লো আর টার্নিং উইকেট ব্যাটসম্যানদের জন্য কতটা কঠিন, সেটি তুলে ধরেছেন লিটন, ‘ব্যাটিং কন্ডিশন একটু তো চ্যালেঞ্জিং। কারণ গত ৩ টা ম্যাচই দেখেন লো স্কোরিং ছিল। শুধু আমরা না, ওদের ব্যাটসম্যানরাও ভুগেছে। এটা তো চ্যালেঞ্জিং বিষয়, কারণ টি-টোয়েন্টিতে সবসময় মাইন্ড সেটাপ থাকে বড় স্কোর করার বা স্ট্রাইক রেটটা মেইনটেইন করার। যেহেতু এ জিনিসটা হচ্ছে না, গেমটা চেঞ্জ করতে হচ্ছে। কিন্তু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এরকম উইকেটে সেটা ম্যানেজ করে নেওয়া একটু কঠিন। কারণ প্রতিটি ব্যাটসম্যানই একটু আক্রমণাত্মক মেজাজে থাকে।’

বাউন্ডারি মারা কঠিন বলে স্কোরবোর্ডও সমৃদ্ধ হচ্ছে না। লিটন মনে করেন, রানের চাকা সচল রাখতে সিঙ্গেলে ফোকাস করার বিকল্প নেই, ‘আমার কাছে যে জিনিসটা মনে হয়, যেহেতু লো স্কোরিং ম্যাচ হচ্ছে তো স্কোর করাটা এত সহজ না। ওভার বাউন্ডারি বা এমনি বাউন্ডারি মারাটা অনেক কঠিন। আমার কাছে মনে হয় সিঙ্গেলে একটু বেশি ফোকাস দিতে হবে। রানিং বিটুইন দ্য উইকেটে একটু বেশি ফোকাস দিতে হবে। ’

রবিবার নাঈম ও লিটন মিলে শুরুটা ভালোই করেছিলেন। কিন্তু দ্রুত রান তুলতে গিয়ে সাজঘরে ফেরেন লিটন। এখন সামনের ম্যাচে বড় ইনিংস খেলার দিকে মনোযোগ তার, ‘আমি আর নাঈম শুরুটা ভালো করেছিলাম, যদি ওই জায়গাটায় আরেকটু সেন্সিটিভ ক্রিকেট খেলতে পারতাম, আরেকটু দায়িত্ব নিতে পারতাম, জিনিসটা সহজ হয়ে যেত। কারণ দ্বিতীয় ম্যাচেও আমার ও নাঈইমের ভালো একটা জুটির কারণে পরের ব্যাটসম্যানরা সহজ ব্যাটিং করতে পেরেছে। এরকম সুযোগ আসলে পরের বার চেষ্টা করবো ইনিংসটা বড় করার জন্য।’

বুধবার সিরিজের চতুর্থ ম্যাচ। তার আগে সোমবার নির্ভার সময় কাটিয়েছে বাংলাদেশ দল। মাঠের অনুশীলন ছিল না। হোটেলে জিম, সুইমিং করেই দিনটি কেটেছে। দিনটির অভিজ্ঞতা নিয়ে লিটন বলেছেন, ‘আজকে অনুশীলন ছিল না, ছুটির দিন ছিল। কাল (মঙ্গলবার) অনুশীলন আছে, আসলে একদিন পর পর খেলা হলে, একটা ব্রেক গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবাই টিম ওয়াইজ ফিটনেসে অনেক মনযোগ দিচ্ছি, জিম করছি। কারণ স্ট্রেন্থ অনেক বেশি দরকার, আমার মনে হয় জিম থেকে এ জিনিসটা পাওয়া যায়।’


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com