সোমবার , ২৯ নভেম্বর ২০২১


অস্ট্রেলিয়ায় গেলেন সানি-তাসকিন




ফটো নিউজ ২৪ : 05/09/2016


-->

স্পাের্টস ডেস্ক: দেশীয় কোচ ও বিসিবির বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির কাছে সবুজ সংকেত পেয়েছিলেন আগেই। অপেক্ষা ছিল অস্ট্রেলিয়াগামী বিমানে চেপে বসার। সেখানেই অ্যাকশন শোধরানোর পরীক্ষা দেবেন পেসার তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার আরাফাত সানি। দেখতে দেখতে সেই ক্ষণটিও এগিয়ে এসেছে। সোমবার রাতেই অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বেন দুই টাইগার বোলার। সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের বিমানে চেপে বসার আগে সবার কাছে দোয়া ও শুভকামনা চেয়ে পাশে থাকার কথা বলে পা বাড়ালেন সানি-তাসকিন।

অস্ট্রেলিয়া যাত্রার আগে সোমবার পাসপোর্ট, যাবতীয় কাগজ ও প্রয়োজনীয় নির্দেশনা বুঝে নিতে বিসিবিতে বেশ ব্যস্ত সময় কাটল তাসকিন-সানির। এরপর বিদায় পর্ব। সেটি সারা হলো গণমাধ্যম কর্মীদের শুভেচ্ছাবার্তাতে। সঙ্গে ক্যামেরার ফ্ল্যাশের জ্বলে ওঠার মধ্যেই সংবাদমাধ্যমকে আশার কথা শোনালেন দুজনে। জানালেন, ‘শেষপর্যন্ত যাচ্ছি। ফ্লাইট রাত ১১টা ৫৫মিনিটে। আশা করি সবকিছু ঠিক করেই ফিরতে পারবো। সবাই দোয়া করবেন।’Taskin

সতীর্থরা যখন হোম অব ক্রিকেটের ইনডোরে ঘাম ঝরাতে ব্যস্ত। তাসকিন-সানি তখন পাসপোর্ট হাতে ছুটছেন নিজ নিজ গাড়ির দিকে। মুখে সবসময় হাসি লেগে থাকা তাসকিনকে দেখে মনে হলো না অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার কারণের সঙ্গে কোনো ভয় জাগানো সংবাদের সংযোগ থাকতে পারে। তবে পরীক্ষা যখন, সেটাকে পরীক্ষার মত করেই দেখতে চান তাসকিন।

‘আজকে যাচ্ছি। যাওয়ার আগে চার-পাঁচ মাস ধরে কঠিন পরিশ্রম করেছি। পজিটিভ আশা নিয়েই যাচ্ছি। সেখানে শতভাগ চেষ্টা করবো। আশা করি ভালো খবর পাওয়ার মত কিছু করেই ফিরবো।’ তাসকিনের সরল-সোজা উত্তর। যাওয়ার আগে সিনিয়র সতীর্থদের থেকে আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর রসদ পেয়েছেন বলেও জানালের এই গতি তারকা।

সানি অবশ্য অতটা সরল করে ভাবতে পারছেন না। একে তো তাকে নিয়েই খানিকটা বেশি ঝুঁকি আছে। তার ওপর তিনদিন ধরে জাপটে ধরা জ্বরটা নিয়ে উড়াল দিতে হচ্ছে। ঘাড়ে খানিকটা ব্যথা আছে বলেও জানালেন। তবে আশাহত হওয়ার মত কিছু দেখছেন না তিনিও।

তাসকিনের সঙ্গে ভালো খবর পাওয়ার আত্মবিশ্বাসে তাই কমতি নেই সানিরও। জানালেন, ‘দেশে কোচিং স্টাফরা দুজনকেই বলেছেন বোলিংয়ে উন্নতি হয়েছে। তাই সাহস হারাচ্ছি না। তবে একটা পরীক্ষা যখন, সব পরীক্ষার আগের মতই কিছুটা চাপও সঙ্গে থাকছে। আমাদের কাজটা যদি ঠিকঠাক করতে পারি, আশাকরি দ্রুতই আন্তর্জাতিক ম্যাচে ফিরতে পারবো।’

বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষার সময় প্রধান কোচ চণ্ডিকা হাথুরুসিংহেকে অভিভাবক হিসেবে পাশে পাচ্ছেন তাসকিন-সানি। তাসকিনের কাছে সেটা বাড়তি স্বস্তির বিষয়। কঠিন মুহূর্তে হাথুরুর মত কাউকে পাশে পাওয়া নিয়ে জানালেন, ‘তার মত একজন এমন সময় পাশে থাকলে অনেককিছু সহজ মনে হয়। তিনি আমাদের খুব ভালোভাবে জানেন, বোঝেন। তার পাশে থাকাটা বাড়তি সাহস যোগাবে।’

ব্রিসবেনের ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারের গবেষণাগারে সেপ্টেম্বরের ৮ তারিখে হবে দুই টাইগার বোলারের অ্যাকশনের পরীক্ষা। তাসকিনকেই আগে পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। টাইগারদের গতি তারকা জানালেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় সময় ঐদিন সকাল সাড়ে দশটায় পরীক্ষা দিবো আমি।’ আর সানি জানালেন তার পরীক্ষাটি হবে দুপুর দুইটায়। পরীক্ষার আগে দুজনে একদিন ব্রিসবেন ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারে অনুশীলন করার সুযোগ পাচ্ছেন বলেও জানালেন। আর সব ঠিক থাকলে দেশে ফিরতে পারবেন ঈদের একদিন আগেই।

এর আগে চলতি বছর ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর চলাকালে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ হন বাংলাদেশের দুই বোলার পেসার তাসকিন ও স্পিনার সানি। এরপর থেকে নিজেদের বোলিং অ্যাকশন শোধরাতে দেশীয় কোচের অধীনে কাজ করেছেন তারা। এবার আইসিসির অনুমোদিত ল্যাবে বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষায় বৈধতা প্রমাণিত হলেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার অনুমতি মিলবে তাদের।


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com