সোমবার , ১৭ জানুয়ারী ২০২২


মালদ্বীপকে ১৩টি সামরিক যান উপহার দিচ্ছে বাংলাদেশ




ফটো নিউজ ২৪ : 19/12/2021


-->

মালদ্বীপের অনুরোধে ১৩টি সামরিক যান সে দেশকে উপহার দিচ্ছে বাংলাদেশ।

দ্বীপ দেশটির সঙ্গে মিলিটারি ডিপ্লোম্যাসির অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন মালদ্বীপ সফরের সময়ে এই যানগুলো হস্তান্তর করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী বুধবার (২২ ডিসেম্বর) মালের উদ্দেশে রওনা হবেন এবং ২৪ ডিসেম্বর ঢাকা ফিরবেন।

রবিবার (১৯ ডিসেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘মালদ্বীপের প্রতিরক্ষা দফতরের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রদেয় ১৩টি সেনাযান বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে মালদ্বীপের প্রতিরক্ষা দফতরের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’

এ বিষয়ে দক্ষিণ এশিয়া অনুবিভাগের মহাপরিচালক এটিএম রকিবুল হক বলেন, ‘মালদ্বীপের তরফ থেকে একটি অনুরোধ ছিল এবং এরপর আমাদের এখানে সিদ্ধান্ত হয়েছিল যে তাদের ১৩টি যান আমরা উপহার হিসেবে দেবো। এই উপহার প্রধানমন্ত্রীর সফরের সময়ে তার উপস্থিতিতে হস্তান্তর করা হবে।’

যানগুলো ডিসেম্বরের ২ ও ১২ তারিখে মালদ্বীপে পৌঁছেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের আর্মড ফোর্সেস ডিভিশন বিষয়টি দেখছে এবং মালদ্বীপের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে গাড়িগুলো তারা নির্বাচন করেছে। নির্বাচনের পরে আমরা মালদ্বীপ সরকারকে বিষয়টি জানাই এবং তখন তারা এটি নিতে আগ্রহ প্রকাশ করে।’

শ্রমবাজার

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে উন্নত দেশ মালদ্বীপে অনেক বাংলাদেশি কাজ করছেন এবং আগামীতে সেখানে কাজের সম্ভাবনা বাড়বে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘কোভিড পরিস্থিতির সময়ে ওই দেশের বাজার কিছুটা শ্লথগতি ছিল, কিন্তু তাদের অর্থনীতি আবারও চাঙা হচ্ছে।’

মালদ্বীপের ৬০টি দ্বীপে নতুন করে পর্যটন কেন্দ্র তৈরি হচ্ছে এবং সেখানে কাজের সম্ভাবনা তৈরি হবে।’

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘এবারের সফরে বিশেষজ্ঞ ও স্বাস্থ্যকর্মী পাঠানোর বিষয়ে সমঝোতা স্মারক সইয়ের সম্ভাবনা আছে।’ এর আগে কিছু স্বাস্থ্যকর্মী পাঠানো হয়েছিল বলেন জানান তিনি।

মালদ্বীপ বাংলাদেশের কাছে বিশেষজ্ঞ এবং দক্ষ শ্রমিক চাইছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমার ধারণা, সেখানে বেশি বিশেষজ্ঞরা যাবে না, তবে অন্যরা, যেমন- ডাক্তার ও নার্স যাবে।’

এবারের সফরে একটি চুক্তি হবে, যার মাধ্যমে ডাক্তার এবং নার্স পাঠানোর একটা সম্ভাবনা তৈরি হবে বলেও তিনি জানান।

কানেক্টিভিটি

মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি এবং উপ-রাষ্ট্রপতি উভয়ের ঢাকা সফরের সময় কানেক্টিভিটির ওপরে জোর দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে কিছুটা অগ্রগতি হয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘ওই সময় দুটো বিষয় ছিল। একটি ছিল বিমান যোগাযোগ এবং আরেকটি সমুদ্র যোগাযোগ। এরমধ্যে ইউএস-বাংলা তাদের ফ্লাইট চালু করেছে এবং বিমান খুব শিগগিরই চালু করতে যাচ্ছে।’

শিপিং চুক্তিটি বাংলাদেশের নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় এখনও শেষ করতে পারেনি। কিন্তু ভবিষ্যতে এটি করা হবে বলে তিনি জানান।

কোভিড পরিস্থিতির কারণে অগ্রাধিকার বাণিজ্যচুক্তির ক্ষেত্রে বেশি দূর অগ্রসর হওয়া সম্ভব হয়নি বলে উল্লেখ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বন্দি বিনিময়

মোমেন জানান, বাংলাদেশে মালদ্বীপের কোনও বন্দি নেই, কিন্তু ওই দেশে ৫৩ জন বাংলাদেশি বন্দি আছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যর্পণ চুক্তি নিয়ে কোনও আলোচনা নেই। কিন্তু বন্দি বিনিময় নিয়ে আলোচনা চলছে। এ বিষয়টি মালদ্বীপ এখনও পুরোপুরি শেষ করতে পারেনি।’

বন্দি বিনিময় চুক্তি করতে কেবিনেট সম্মত হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মালদ্বীপ এ বিষয়ে অগ্রসর হয়নি, কিন্তু আমরা তৈরি।’


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com