সোমবার , ৬ ডিসেম্বর ২০২১


ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা




ফটো নিউজ ২৪ : 12/11/2021


-->

দ্বিতীয় ধাপে দেশের ৮৩৫টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই ধাপে ২৬টি ইউপিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৪টায় শেষ হয়। ভোট গণনা শেষে রাতে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ফলাফলে বেশিরভাগ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

খুলনা

খুলনা জেলার ২৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ১০টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী, ১০টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এবং ৫টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। এই ৫ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় ধাপে খুলনার ডুমুরিয়া, রূপসা, ফুলতলা ও বটিয়াঘাটা উপজেলার ২৫টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ১১৪ জন প্রার্থী। ভোটগ্রহণ শেষে বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে।

এরমধ্যে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার রঘুনাথপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মনোজিত বালা, মাগুরখালীতে আওয়ামী লীগের বিমল কৃষ্ণ সানা, খর্ণিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা শেখ দিদারুল ইসলাম দিদার, ধামালিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা জহুরুল হক, আটলিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা শেখ হেলাল উদ্দিন, ভান্ডারপাড়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোপাল চন্দ্র দে, রুদাঘরায় মো. তৌহিদুজ্জামান, রংপুরে সমরেশ মন্ডল, ডুমুরিয়া সদরে গাজী মো. হুমায়ুন কবীর বুলু, শোভনায় সুরঞ্জিত কুমার বৈদ্য, শরাফপুরে শেখ রবিউল ইসলাম রবি, মাগুরঘোনায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. রফিকুল ইসলাম হেলাল, গুটুদিয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শেখ তুহিনুল ইসলাম ও সাহস ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা মো. মাহবুবুর রহমান বিজয়ী হয়েছেন।

খুলনা

খুলনা জেলার ২৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ১০টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী, ১০টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এবং ৫টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। এই ৫ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় ধাপে খুলনার ডুমুরিয়া, রূপসা, ফুলতলা ও বটিয়াঘাটা উপজেলার ২৫টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ১১৪ জন প্রার্থী। ভোটগ্রহণ শেষে বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে।

এরমধ্যে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার রঘুনাথপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মনোজিত বালা, মাগুরখালীতে আওয়ামী লীগের বিমল কৃষ্ণ সানা, খর্ণিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা শেখ দিদারুল ইসলাম দিদার, ধামালিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা জহুরুল হক, আটলিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা শেখ হেলাল উদ্দিন, ভান্ডারপাড়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গোপাল চন্দ্র দে, রুদাঘরায় মো. তৌহিদুজ্জামান, রংপুরে সমরেশ মন্ডল, ডুমুরিয়া সদরে গাজী মো. হুমায়ুন কবীর বুলু, শোভনায় সুরঞ্জিত কুমার বৈদ্য, শরাফপুরে শেখ রবিউল ইসলাম রবি, মাগুরঘোনায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. রফিকুল ইসলাম হেলাল, গুটুদিয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শেখ তুহিনুল ইসলাম ও সাহস ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা মো. মাহবুবুর রহমান বিজয়ী হয়েছেন।

ফুলতলা উপজেলার ফুলতলা সদর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা শেখ আবুল বাশার, জামিরায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সরদার মনিরুল ইসলাম, দামোদরে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শরীফ মো. ভূঁইয়া শিপলু ও আটরা গিলাতলা ইউনিয়নে শেখ মনিরুল ইসলাম নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া বটিয়াঘাটা সদর ইউনিয়েনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পল্লব কুমার বিশ্বাস, ভান্ডারকোটে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ওবায়দুল্লাহ শেখ ও সুরখালী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এস কে জাকির হোসেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

মেহেরপুর

মেহেরপুরের দুই উপজেলার ৯ ইউনিয়নের ২টিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও ৭টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী জয়লাভ করেছেন। এর মধ্যে গাংনী উপজেলার সাহারবাটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মশিউর রহমান, বামন্দীতে ওবাইদুর রহমান কোমল, কাথুলীতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মিজানুর রহমান রানা, মটমুড়ায় সোহেল আহম্মেদ ও তেঁতুলবাড়ীয়া ইউনিয়নে নাজমুল হুদা বিশ্বাস জয়লাভ করেছেন।

মুজিবনগর উপজেলার দারিয়াপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মাহফুজুল আলম রবি, বাগোয়ানে আয়ুব হোসেন, মহাজনপুরে আমাম হোসেন মিলু ও মোনাখালী ইউনিয়নে মফিজুর রহমান জয়লাভ করেছেন।

ফরিদপুর

ফরিদপুরের নগরকান্দা ও সালথা উপজেলার ১৭ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের ফলাফল পাওয়া গেছে। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) রাতে ফলাফল ঘোষণা করেন। নগরকান্দা উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী, ৩টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।

এরা হলেন- চরযশোরদী ইউনিয়নে কামরুজ্জামান সাহেব ফকির (নৌকা), পুরাপাড়ায় আতাউর রহমান বাবু ফকির (আনারস), কোদালিয়া শহীদনগরে খোন্দকার জাকির হোসেন নিলু (নৌকা), কাইচাইলে মোস্তফা খান (নৌকা), লস্করদিয়ায় হাবিবুর রহমান বাবুল তালুকদার (চশমা), তালমায় কামাল হোসেন মিয়া (মোটরসাইকেল), রামনগরে কাইমুদ্দিন মন্ডল (আনারস), ডাঙ্গীতে কাজী আবুল কালাম (নৌকা) ও ফুলসুতি ইউনিয়নে আরিফ হোসেন (নৌকা)।

সালথা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন- রামকান্তপুর ইউনিয়নে ইশারত হোসেন (স্বতন্ত্র),আটঘরে শহিদুল হাসান খান সোহাগ (নৌকা),ভাওয়ালে ফারুকুজ্জামান ফকির মিয়া (নৌকা),গট্টিতে হাবিবুর রহমান লাবলু (নৌকা), মাঝারদিয়ায় আফসার উদ্দিন মাতুব্বর (নৌকা), সোনাপুরে খায়রুজ্জামান বাবু মোল্লা (নৌকা), যদুনন্দীতে মো. রফিক মোল্লা (স্বতন্ত্র) ও বল্লভদি ইউনিয়নে নুরুল ইসলাম (নৌকা)।

এর মধ্যে নগরকান্দার লস্করদিয়া ইউনিয়নে চশমা প্রতীকের হাবিবুর রহমান বাবুল তালুকদার নগরকান্দা উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি।

মাগুরা

শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ শেষে মাগুরা সদর উপজেলার ১০ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ৭টিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী, ২টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও ১টিতে ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে অপর ৩টি ইউনিয়নে আগেই নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

কেন্দ্রঘোষিত বেসরকারি ফলাফল ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নানের দেওয়া তথ্য মতে নির্বাচনে বিজয়ীরা হলেন- রাঘবদাইড় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আশরাফুল আলম বাবুল ফকির, মঘিতে হাচনা হেনা, জগদলে সৈয়দ রফিকুল ইসলাম, গোপালগ্রামে অধ্যক্ষ নাসিরুল ইসলাম মিলন, চাউলিয়ায় হাফিজার রহমান, কছুন্দিতে আবুল কাশেম মোল্যা এবং আঠারোখাদা ইউনিয়নে সঞ্জিবন বিশ্বাস।

শত্রুজিৎপুর ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মুফতি মওলানা ওসমান গণি। বেরইল পলিতা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এনামুল হক রাজা ও কুচিয়ামোড়া ইউনিয়নে জাহিদুর রহমান টিপু বিজয়ী হয়েছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় অপর তিন ইউনিয়ন- হাজরাপুরে কবির হোসেন, হাজিপুরে মোজাহারুল ইসলাম ও বগিয়ায় মীর রওনোক হোসেন আগেই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বিনা প্রতিদ্ধন্দিতায় নির্বাচিত তিন চেয়ারম্যানই আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ছিলেন বলে নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে।

মুন্সিগঞ্জ

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী, ৮টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও অপর একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) রাতে জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

নির্বাচনে বিজয়ীরা হলেন- উপজেলার রাড়িখাল ইউনিয়নে বারেক খান (নৌকা), ভাগ্যকূলে শাহাদাত কাজী (নৌকা), শ্রীনগরে তাজুল ইসলাম (আনারস), ষোলঘরে আজিজুল ইসলাম (নৌকা), তন্তরে আলী আকবর (আনারস),আটপাড়ায় ফজলুর রহমান (চশমা), পাটাভোগে মুন খান (নৌকা),বীরতারায় জিল্লুর রহমান (আনারস), শ্যামসিদ্ধিতে জি এস নাজির (আনারস), হাসাড়ায় সোলাইমান (আনারস) বাঘড়ায় তানজিল (টেলিফোন), কোলাপাড়ায় রফিকুল ইসলাম বাবু (আনারস), কুকুটিয়ায় বাবুল হোসেন বাবু (আনারস) ও বাড়ৈখালী ইউনিয়নে ফারুক হোসেন (নৌকা)।

লক্ষ্মীপুর

 

লক্ষ্মীপুরে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩টিতে আওয়ামী লীগ ও একটিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের চেয়ারম্যান প্রার্থী বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাতে লক্ষ্মীপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বিজয়ীদের নাম নিশ্চিত করেছেন।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন- কমলনগর উপজেলার চরমার্টিন ইউনিয়নে ইউছুফ আলী মিয়া (আওয়ামী লীগ), চরলরেন্স ইউনিয়নে একেএম নুরুল আমিন (আওয়ামী লীগ, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়), চরকাদিরা ইউনিয়নে মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ) ও রামগতি উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নে তাওহিদুল ইসলাম সুমন (আওয়ামী লীগ)। এর মধ্যে ইউছুফ আলী মিয়া, খালেদ সাইফুল্লাহ, তাওহিদুল ইসলাম সুমন বর্তমান চেয়ারম্যান। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত একেএম নুরুল আমিন কমলনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চর কাদিরাতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নুরুল আমিন সাগরের ভরাডুবি হয়েছে। তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। সেখানে হাতপাখা মার্কা নিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন খালেদ সাইফুল্যা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আশরাফ উদ্দিন রাজন রাজু (মোটরসাইকেল)।

জয়পুরহাট

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল ও আক্কেলপুর উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পাঁচজন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও একজন স্বতন্ত্র (বিএনপি) প্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। এর আগে আরেক ইউনিয়ের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। সব মিলিয়ে সাত ইউনিয়নের ছয়টিতে আওয়ামী লীগের জয় হয়েছে। দুই উপজেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন অফিসাররা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নির্বাচনে বিজয়ীরা হলেন- ক্ষেতলাল উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নে আনোয়ারুজ্জামান তালুকদার নাদিম (নৌকা) মামুদপুরে মশিউর রহমান শামীম (নৌকা), আক্কেলপুর উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নে ডি এম রাহেল ইমাম (নৌকা), রায়কালীতে আব্দুর রশীদ মন্ডল (নৌকা), তিলকপুরে সেলিম মাহবুব সজল (নৌকা) ও গোপীনাথপু ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুর রহমান (আনারস) বিজয়ী হয়েছে। রুকিন্দিপুর ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আহসান কবির বিপ্লবকে (নৌকা) বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

বরিশাল

ব‌রিশাল জেলার ১২টি ইউনিয়নের ম‌ধ্যে ৯টি‌তে জয় পে‌য়ে‌ছে আওয়ামী লীগ ম‌নোনীত নৌকা প্রতী‌কের প্রার্থীরা। এছাড়া এক‌টি‌তে হাতপাখা ও দু‌টি‌তে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হ‌য়ে‌ছেন।‌ বিষয়‌টি নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছেন স্ব স্ব উপ‌জেলা নির্বাচন ও রিটা‌র্নিং কর্মকর্তারা। বরিশাল জেলার সদর, বানারীপাড়া ও আগৈলঝাড়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে আ‌গৈলঝাড়া উপ‌জেলার ৫টি ইউ‌নিয়‌নে বিনা প্র‌তিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হ‌য়ে‌ছেন।

তারা হলেন- ওই উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের ইলিয়াস তালুকদার, বাকাল ইউনিয়নের বিপুল দাস, বাগধা ইউনিয়নের আমিনুল ইসলাম বাবুল ভাট্টি, গৈলা ইউনিয়নের শফিকুল হোসেন ও রত্নপুর ইউনিয়নের গোলাম মোস্তফা সরদার এককভাবে বিজয়ী হ‌য়ে‌ছেন। তারা সবাই আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী। যারা ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন।

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ভোটে বানারীপাড়া উপ‌জেলার সৈয়দকাঠী ইউ‌নিয়‌নে মো. আনোয়ার হোসেন মৃধা (আওয়ামী লীগ)। আর ব‌রিশাল সদর উপ‌জেলার রায়পাশা-কড়াপুর ইউ‌নিয়‌নে আহম্মদ শাহ‌রিয়ার (আওয়ামী লীগ), চরকাউয়া ইউ‌নিয়‌নে ম‌নিরুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), চাঁদপুরা ইউ‌নিয়‌নে জাহিদ হোসেন (স্বতন্ত্র), চন্দ্র‌মোহন ইউ‌নিয়‌নে মো. সিরাজুল হক (স্বতন্ত্র), চর‌মোনাই ইউ‌নিয়‌নে সৈয়দ মো. জিয়াউল ক‌রিম (ইসলামী আ‌ন্দোলন বাংলা‌দে‌শ) ও শা‌য়েস্তাবাদ ইউ‌নিয়‌নে আ‌রিফুজ্জামান মুন্না (আওয়ামী লীগ) বেসরকা‌রিভা‌বে বিজয়ী হ‌য়ে‌ছেন।

রংপুর

রংপুরের পীরগাছা ও পীরগঞ্জ উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১১টিতে আওয়ামী লীগ, একটিতে জাতীয় পার্টি এবং বাকি ছয়টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। নির্বাচিত ছয় স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে বিএনপিপন্থী ৩ জন, জাতীয় পার্টি ও জামায়াতে ইসলামীর একজন করে রয়েছেন।

এর মধ্যে পীরগাছায় আওয়ামী লীগের তিন, জাতীয় পার্টির এক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (বিএনপি ও জামায়াত) চারজন নির্বাচিত হয়েছেন। অন্যদিকে পীরগঞ্জের ৮টিতে আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্র দুইজন চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী রয়েছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার সূত্রে জানা গেছে, পীরগাছা উপজেলার পারুল ইউনিয়নে তোফাজ্জল হোসেন (নৌকা), ইটাকুমারী আবুল বাশার (নৌকা), অন্নদানগরে আমিনুল ইসলাম (নৌকা), কৈকুড়িতে নুর আলম (লাঙ্গল), পীরগাছা সদরে মোস্তাফিজুর রহমান রেজা (স্বতন্ত্র-বিএনপি), ছাওলায় নজির হোসেন (স্বতন্ত্র-বিএনপি), কান্দিতে আব্দুস ছালাম আজাদ জুয়েল (স্বতন্ত্র-বিএনপি) এবং তাম্বুলপুর ইউনিয়নে বজলুর রশিদ মুকুল (স্বতন্ত্র-জামায়াত) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া পীরগঞ্জের চৈত্রকোল ইউনিয়নে আরিফুজ্জামান শাহ্ (নৌকা), ভেন্ডাবাড়িতে সাদেকুল ইসলাম সাদেক (নৌকা), কুমেদপুরে আমিনুল ইসলাম (নৌকা), টুকুরিয়ায় আতাউর রহমান (নৌকা), শানেরহাটে মেজবাহুল (নৌকা), পাঁচগাছীতে বাবলু মিয়া (নৌকা), চতরাতে এনামুল হক শাহীন (নৌকা), কাবিলপুরে রবিউল ইসলাম (নৌকা), বড়দরগাহ্ ইউনিয়নে শিলা আক্তার (স্বতন্ত্র) এবং মদনখালীতে নূর মোহাম্মদ মঞ্জু (স্বতন্ত্র) বিজয়ী হয়েছেন।

রাজশাহী

রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও তানোর উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে ৯টিতে আওয়ামী লীগ ও ৬টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন। গোদাগাড়ীর ৯টি এবং তানোরের ৬টি ইউনিয়নের মধ্যে গোদাগাড়ীতে ৫টি ও তানোরের ৪টি ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন।

গোদাগাড়ীতে নৌকা প্রতীকে জয় পাওয়া প্রার্থীরা হলেন- সদর ইউনিয়নে মসিদুল গণি, দেওপাড়ায় বেলাল উদ্দিন সোহেল, গোগ্রামে মজিবুর রহমান, পাকড়িতে জালাল উদ্দীন এবং মোহনপুরে খায়রুল ইসলাম।

এছাড়া জয় পাওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন- মাটিকাটায় সোহেল রানা (মোটর সাইকেল), বাসদেবপুরে নজরুল ইসলাম (মোটরসাইকেল) এবং রিশিকুলে মোখলেছুর রহমান (অটোরিকশা)।

অন্যদিকে, তানোরে নৌকা প্রতীকে জয় পাওয়া প্রার্থীরা হলেন- চান্দুরিয়ায় মজিবুর রহমান, পাঁচন্দরে আব্দুল মতিন, বাঁধাইড়ে আতাউর রহমান এবং কামারগাঁয়ে রাব্বি ফরহাদ চৌধুরী। এছাড়া জয় পাওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন- কলমায় খাদেমুন নবী বাবু চৌধুরী (চশমা) ও তালন্দ ইউনিয়নে নাজিম উদ্দিন বাবু (আনারস)।

নেত্রকোনা

নেত্রকোনার সদর, বারহাট্টা ও আটপাড়া উপজেলার ২৫টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ ও গণনা সম্পন্ন হয়েছে। তবে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে জাল ভোট প্রয়োগের অভিযোগে দুপুরে জেলার সদর উপজেলার লক্ষীগঞ্জ ইউনিয়নের আতকাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বায়রাউড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করে দেওয়ায় ওই ইউনিয়নের ফলাফলও স্থগিত রয়েছে।

এছাড়া অন্য ২৪টি ইউনিয়নের ভোট কেন্দ্রগুলোর প্রাপ্ত বেসরকারি ফলাফলে চেয়ারম্যান পদে ১৭টি ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এবং অপর ৭ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন।

বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, জেলার সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে কালিয়ারা গাবরাগাতি ইউনিয়নে মো. আমজাদ হোসেন খান (নৌকা), মেদনী ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ মিজানুর রহমান (ঘোড়া), ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নে মো.আব্দুর রাজ্জাক (নৌকা), সিংহের বাংলা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আলী আহসান (ঘোড়া), আমতলা ইউনিয়নে মো. রউফ সবুজ (নৌকা), মৌগাতি ইউনিয়নে মো. মোস্তাফিজুর রহমান খান (নৌকা), রৌহা ইউনিয়নে মো. আব্দুর রশিদ (নৌকা), চল্লিশা ইউনিয়নে সৈয়দ মাহবুবউল মজিদ (নৌকা), দক্ষিণ বিশিউড়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সেলিম আজাদ সেলিম (ঘোড়া) ও কাইলাটী ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নাজমুল হক (ঘোড়া)।

জেলার আটপাড়া উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে সবকটিতেই নৌকার প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। এর মধ্যে উপজেলার স্বরমুশিয়া ইউনিয়নে মো. আব্দুস সাত্তার, লুনেশ্বর ইউনিয়নে মো. শাহজাহান কবীর, বানিয়াজান ইউনিয়নে মো. ফেরদৌস মিয়া, তেলিগাতী ইউনিয়নে অখিল চন্দ্র দাস, দুওজ ইউনিয়নে সাইদুল হক তালুকদার, সুখারী ইউনিয়নে মো. শাহজাহান ও শুনই ইউনিয়নে মো. রোকন উজ্জামান।

এদিকে, জেলার বারহাট্টা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে সাহতা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান (ঘোড়া), বারহাট্টা সদর ইউনিয়নে কাজী সাখাওয়াত হোসেন (নৌকা), বাউসি ইউনিয়নে মো. শামছুল হক (নৌকা), আসমা ইউনিয়নে মো. শফিকুল ইসলাম খান (নৌকা), চিরাম ইউনিয়নে মো. সাইদুর রহমান চৌধুরী (নৌকা), সিংধা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নাসিম উদ্দিন তালুকদার (টেবিলফ্যান) ও রায়পুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আতিকুর রহমান রাজু (ঘোড়া) বিজয়ী হয়েছেন।

নরসিংদী

দ্বিতীয় ধাপে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার ১০টি ও সদর উপজেলার ২টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১২টির মধ্যে ৬টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জয় পেয়েছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। বাকি ছয়টিতে জয় পেয়েছেন নৌকার প্রার্থী।

বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন- সদর উপজেলার চরদীঘলদীতে দেলোয়ার হোসেন শাহীন (আওয়ামী লীগ), আলোকবালী ইউনিয়নে দেলোয়ার হোসেন সরকার দিপু (আওয়ামী লীগ) ও রায়পুরা উপজেলার বাঁশগাড়ীতে রাতুল হাসান জাকির (স্বতন্ত্র), শ্রীনগরে রিয়াজ মোরশেদ খান রাসেল (আওয়ামী লীগ), পাড়াতলীতে ফেরদৌস কামাল জুয়েল (আওয়ামী লীগ), চরমধুয়ায় আহসান শিকদার (স্বতন্ত্র), মির্জানগরে বশির উদ্দিন সরকার রিপন (স্বতন্ত্র), আমিরগঞ্জে ফজলুল করিম ফারুক (স্বতন্ত্র), হাইরমারায় কবির হোসেন (আওয়ামী লীগ), মির্জারচরে জাফর ইকবাল মানিক (স্বতন্ত্র), নিলক্ষ্যায় আক্তারুজ্জামান (স্বতন্ত্র) ও চরসুবুদ্ধিতে নাসির উদ্দিন (আওয়ামী লীগ)।

গাজীপুর

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায় বৃহস্পতিবার ১১টি ইউনিয়নের ৮টিতে আওয়ামী লীগ ও ৩টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। জেলা নির্বাচন অফিসার মো. ইস্তাফিজুল ইসলাম আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

উপজেলার সদরের কাপাসিয়া ইউনিয়ন থেকে সাখাওয়াত হোসেন (নৌকা), তরগাঁও ইউনিয়নে আয়বুর রহমান (নৌকা), দূর্গাপুর ইউনিয়নে এমএ ওহাব খাঁন খোকা (স্বতন্ত্র), চাঁদপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র ইকবাল মাহমুদ খান (স্বতন্ত্র), রায়েদ ইউনিয়নে মো. শফিকুল হাকিম মোল্লা (নৌকা), সিংহশ্রী ইউনিয়নে মো. আনোয়ার পারভেজ (নৌকা), সনমানিয়া ইউনিয়নে অ্যাডভোকেট আবদুল মালেক ভূইয়া (নৌকা), ঘাগটিয়া ইউনিয়নে মো. হারুন অর রশিদ (নৌকা), বারিষাব ইউনিয়ন পরিষদে এসএম আতাউজ্জামান (স্বতন্ত্র), টোক ইউনিয়নে এম এ জলিল (নৌকা) ও কড়িহাতা ইউনিয়নে মো. মাহবুবুল আলম মোড়ল (নৌকা) নির্বাচিত হয়েছেন।

কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ার মিরপুর ও ভেড়ামারা উপজেলার ১৭টি ইউনিয়নের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৯, বিদ্রোহী ৭ ও জাসদের একজন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। মিরপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের বারুইপাড়ায় শফিকুল ইসলাম মন্টু (আওয়ামী লীগ), আমলায় একলিমুর রেজা সাবান জোয়ার্দ্দার (আওয়ামী লীগ), কুর্শায় আব্দুল হান্নান (আওয়ামী লীগ), মালিহাদে আকরাম হোসেন (আওয়ামী লীগ), বহলবাড়িয়ায় শহিদুল ইসলাম সাইদুল (আওয়ামী লীগ) ও আমবাড়িয়ায় সাইফুদ্দিন মুকুল (আওয়ামী লীগ) নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়াও ফুলবাড়িয়ায় নুরুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), ছাতিয়ানে প্রবীর হোসেন বিশ্বাস (স্বতন্ত্র), সদরপুরে আশরাফুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), তালবাড়িয়ায় আব্দুল হান্নান মন্ডল (স্বতন্ত্র) ও পোড়াদহ ইউনিয়নে ফারুকুজ্জামান জন (স্বতন্ত্র) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

ভেড়ামারা উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের মধ্যে মোকারিমপুর ইউনিয়নে আব্দুস সামাদ (আওয়ামী লীগ), বাহাদুরপুরে সোহেল রানা পবন (আওয়ামী লীগ) ও বাহিরচরে রওশন আরা (আওয়ামী লীগ), জুনিয়াদহে হাসানুজ্জামান হাসান (স্বতন্ত্র), ধরমপুর ইউনিয়নে শামসুল হক (স্বতন্ত্র) ও চাঁদগ্রামে আব্দুল হাফিজ তপন (জাসদ) বিজয়ী হয়েছেন।

পাবনা

পাবনার সুজানগরে ১০ ইউনিয়নের আটটিতেই আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ও দুইজন বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফাতেমা খাতুন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিজয়ীরা হলেন, ভায়না ইউনিয়নে আমিন উদ্দিন (আওয়ামী লীগ), তাঁতিবন্দ ইউনিয়নের মতিন মৃধা (আওয়ামী লীগ), মানিকহাট ইউনিয়নে শফিউল আলম (আওয়ামী লীগ), দুলাই ইউনিয়নে সিরাজুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), সাগরকান্দি ইউনিয়নে শাহিন চৌধুরী (আওয়ামী লীগ), রানীনগর ইউনিয়নে এইচ এম পিযুষ (আওয়ামী লীগ), নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নে মশিউর রহমান (আওয়ামী লীগ), আহম্মদপুর ইউনিয়নে কামাল মিয়া (আওয়ামী লীগ), সাতবাড়িয়া ইউনিয়নে আবুল হোসেন (স্বতন্ত্র) ও হাটখালি ইউনিয়নে ফিরোজ খান (স্বতন্ত্র) নির্বাচিত হয়েছেন।

যশোর

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ১১ ইউনিয়নের মধ্যে ৮টিতে আওয়ামী লীগ, বিদ্রোহী ২ ও একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। আর চৌগাছা উপজেলার ১১ ইউনিয়নের মধ্যে আগেভাগেই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের দুজন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। বাকী ৯টির ৩টিতে নৌকা বাকি ৬টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাতে ভোট গণনা শেষে বেসরকারিভাবে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

যশোরের ঝিকরগাছার গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নে আমিনুর রহমান (নৌকা), মাগুরা ইউনিয়নে আব্দুর রাজ্জাক (নৌকা), শিমুলিয়া ইউনিয়নে মতিয়ার রহমান সরদার (নৌকা), গদখালী ইউনিয়নে শাহজান আলী (চশমা, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী), পানিসারা ইউনিয়নে জাকির হোসেন পিপুল (আনারস, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী), ঝিকরগাছা ইউনিয়নে আমীর হোসেন (নৌকা), নাভারণ ইউনিয়নে শাহাজান আলী (নৌকা), নির্বাসখোলা ইউনিয়নে খায়রুজ্জামান (নৌকা), হাজিরবাগ ইউনিয়নে আতাউর রহমান মিন্টু (নৌকা), শংকরপুর ইউনিয়নে গোবিন্দ কুমার চ্যাটার্জি (নৌকা) ও বাঁকড়া ইউনিয়নে আনিস উর রহমান (মোটরসাইকেল, স্বতন্ত্র) বিজয়ী হয়েছেন।

এদিকে, চৌগাছার ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে দুটিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকার প্রার্থী বিজয়ী হয়। বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহণে বাকি ৯টির মধ্যে ৩টিতে নৌকার প্রার্থী এবং ৬টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। উপজেলার পাশাপোল ইউনিয়নে অবাইদুল ইসলাম সবুজ (নৌকা), সিংহঝুলী ইউনিয়নে হামিদ মল্লিক (স্বতন্ত্র), ধুলিয়ানি ইউনিয়নে এসএম মোমিনুর রহমান (স্বতন্ত্র), জগদীশপুর ইউনিয়নে মাস্টার সিরাজুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), পাতিবিলা ইউনিয়নে বিএনপির আতাউর রহমান লাল (স্বতন্ত্র), হাকিমপুর ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থী মাসুদুল হাসান (স্বতন্ত্র), স্বরুপদাহ ইউনিয়নে নুরুল কদর বিজয় (স্বতন্ত্র), শাহিনুর রহমান শাহিন (নৌকা), সুখপুকুরিয়া ইউনিয়নে বীর মুক্তিযোদ্ধা হবিবর রহমান হবি (নৌকা) বিজয়ী হয়েছেন।

শরীয়তপুর

শরীয়তপুরে সদর উপজেলায় ৯টি ইউনিয়নের ৭টিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হয়। এছাড়া দুটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়। তুলাসার ইউনিয়ন জামাল হোসাইন ও রুদ্রকর ইউনিয়ন ইউনিয়নে সিরাজুল ইসলাম ঢালী আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।

অন্যদিকে পালং ইউনিয়ন ইউনিয়নের কে এম আজাহারুল হোসেন, ডোমশার ইউনিয়নের মাস্টার মজিবর রহমান খান, শৌলপাড়া ইউনিয়নের মোহাম্মদ ভাসানী, আংগারিয়া ইউনিয়নে আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, মাহমুদপুর ইউনিয়নের শাজাহান ঢালী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে জয় পেয়েছেন।

চাঁদপুর

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আওয়ামী লীগের প্রার্থীর জয় হয়েছে। চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নে বেলা‌য়েত হোসেন গাজী বিল্লাল, মৈশাদী‌ ইউ‌নিয়‌নে মো. নুরুল ইসলাম, আ‌শিকা‌টি ইউ‌নিয়‌নে মো. বিল্লাল হো‌সেন, বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে নাছির উদ্দিন খান, শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে মাসুদুর রহমান নান্টু, বালিয়া ইউনিয়নে রফিকুল্লাহ পাটওয়ারী, চান্দ্রা ইউ‌নিয়‌নে খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী বিজয়ী হয়েছেন। এছাড়াও তরপুরচন্ডী ইউনিয়নে ইমাম হাসান রাসেল ও রামপুর ইউনিয়নে আল মামুন পাটওয়ারী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

সিলেট

সিলেটের ১৫টি ইউনিয়নের নির্বাচন হয়েছে। এর মধ্যে কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার ৫টি ,বালাগঞ্জের ৬টি ও সদর উপজেলার ৪টি। সিলেট সদর উপজেলার হাটখোলা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা রফিকুজ্জামান, জালালাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মো. উবায়দুল্লাহ ইসহাক, মোগলগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মো. হিরণ মিয়া ও কান্দিগাঁও ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মনাফ বিজয়ী হয়েছেন।

কোম্পানীগঞ্জে ইসলামপুর পূর্ব ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলমগীর হোসেন আলম ও তেলিখাল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল অদুদ আলফু, ইছাকলস ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাজ্জাদুর রহমান, উত্তর রণিখাই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের ফয়জুর রহমান মাস্টার ও দক্ষিণ রণিখাই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের ইকবাল হোসেন ইমাদকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

বালাগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মুনিম, পূর্ব গৌরীপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী এম মুজিবুর রহমান, পশ্চিম গৌরীপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর রহমান, বোয়ালজুড় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আনহার মিয়া, দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী নাজমুল আলম ও পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের শিহাব উদ্দিন বিজয়ী হয়েছেন।

মৌলভীবাজার

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ৪টিতেই বিজয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা, বাকি একজন নৌকার প্রার্থী। জুড়ী উপজেলার সাগরনাল ইউনিয়নে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল নুর (নৌকা), পূর্বজুড়ী ইউনিয়নে রুয়েল উদ্দিন (স্বতন্ত্র), পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়নে আনফর আলী (স্বতন্ত্র), জায়ফরনগর ইউনিয়নে মাসুম রেজা (স্বতন্ত্র) ও গোয়ালবাড়ীতে আব্দুল কাইয়ুম (স্বতন্ত্র) বিজয়ী হয়েছেন।

চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গার পাঁচটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনটিতে আওয়ামী লীগ এবং দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এরমধ্যে দামুড়হুদা উপজেলার জুড়ানপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সোহরাব হোসেন, দামুড়হুদা সদর ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী হযরত আলী, কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল করিম, কুড়ুলগাছি ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল উদ্দিন ও জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের ইসাবুল ইসলাম মিল্টন বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

নাটোর

নাটোরে দুই উপজেলার ১২টি ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৭ ও স্বতন্ত্র ৫ জন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।নাটোর সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম ও বড়াইগ্রাম উপজেলা নির্বাচন অফিসার হাসিব বিন শাহাব বেসরকারি ভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

নাটোর সদর উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তেবাড়িয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে ওমর আলী প্রধান, কাফুরিয়া ইউনিয়নে অনারস প্রতীকে আবুল কালাম (স্বতন্ত্র), হালসা ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে শফিকুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), ছাতনী ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে তোফাজ্জল হোসেন সরকার, দিঘাপতিয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে শরিফুল ইসলাম বিদ্যুৎ, বড়হরিশপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে ওসমান গণি ভুঁইয়া ও লক্ষীপুর খোলাবাড়িয়া ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে নুরুজ্জামান কালু (স্বতন্ত্র) বিজয়ী পেয়েছেন।

বড়াইগ্রাম উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চান্দাই ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে শাহনাজ পারভীন, জোনাইল ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে আবুল কালাম আজাদ (স্বতন্ত্র), নগর ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে মস্তফা শামসুজোহা সাহেব (স্বতন্ত্র), বড়াইগ্রাম ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে মোমিন আলী এবং গোপালপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে আবু বক্কর সিদ্দিক নির্বাচিত হয়েছেন।

পঞ্চগড়

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় ৭টি ইউনিয়ন পরিষদের দুটিতে আওয়ামী লীগ ও ৫টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার আলী হোসেন।

উপজেলার বাংলাবান্ধা ইউনিয়নে কুদরত-ই-খুদা (স্বতন্ত্র), তিরনইহাট ইউনিয়নে বিএনপির আলমগীর হোসাইন (স্বতন্ত্র), তেঁতুলিয়া ইউনিয়নে মাসুদ করিম সিদ্দিকী (নৌকা), শালবাহান ইউনিয়নে আশরাফুল ইসলাম (নৌকা), বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে বিএনপির তারেক হোসেন (স্বতন্ত্র), ভজনপুর ইউনিয়নে বিএনপির মসলিম উদ্দীন (স্বতন্ত্র) ও দেবনগর ইউনিয়নে ছলেমান আলী (স্বতন্ত্র) বিজয়ী হয়েছেন।

লালমনিরহাট

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের ৬টিকে আওয়ামী লীগ ও দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। রিটার্নিং কর্মকর্তা ডা. মোশারফ হোসেন ফলাফল ঘোষণা করেন।

নির্বাচিতরা হলেন, কমলাবাড়ী ছাত্রলীগ নেতা ওমর মাহমুদ চিশতী (নৌকা), মহিষখোচায় মোসাদ্দেক হোসেন চৌধুরী (নৌকা), ভাদাইয়ে কৃঞ্চ কান্ত বিদুর (নৌকা), সাপ্টীবাড়ীতে আব্দুস সোহরাব (নৌকা), দুর্গাপুরে আসাদুজ্জামান ভুট্টা নান্নু (নৌকা), ভেলাবাড়ীতে মোহাম্মদ আলী (নৌকা), পলাশীতে আলাউল ইসলাম ফাতেমী (স্বতন্ত্র) ও সারপুকুরে হুমায়ুন কবির (স্বতন্ত্র) নির্বাচিত হয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ

কিশোরগঞ্জের তিন উপজেলার ২৯টি ইউনিয়নের ২০টিতে আওয়ামী লীগ, ৪টিতে জাতীয় পার্টি ও ৫টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয় লাভ করেছেন। বাজিতপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের সব কটিতেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন।

হুমাইপুর ইউনিয়নে মো. রফিকুল ইসলাম, দিলালপুর ইউনিয়নে মো. গোলাম কিবরিয়া নোভেল, বলিয়ারদি ইউনিয়নে মো. আবুল কাশেম, সরারচর ইউনিয়েন হাবিবুর রহমান, হালিমপুর ইউনিয়নে মো. ওমর ফারুক (রাসেল), হিলচিয়া ইউনিয়নে মাজহারুল হক নাহিদ, দিঘীরপাড় ইউনিয়নে আ. কাইয়ুম, পিরিজপুর ইউনিয়নে


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com