বৃহস্পতিবার , ৯ ডিসেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » জাতীয় » সাম্প্রদায়িক ঘটনার চক্রান্তকারী ও ইন্ধনদাতারা সবার পরিচিত


সাম্প্রদায়িক ঘটনার চক্রান্তকারী ও ইন্ধনদাতারা সবার পরিচিত




ফটো নিউজ ২৪ : 26/10/2021


-->

কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন অবমাননার অভিযোগ তুলে পূজামণ্ডপ এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার চক্রান্তকারী ও ইন্ধনদাতারা সবার পরিচিত বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আরও নিশ্চিত হয়ে শিগগিরই তাদের নাম জানানো হবে।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) আয়োজিত এক সংলাপে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। সংলাপে আরও বক্তব্য দেন বিএসআরএফের সভাপতি তপন বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, কুমিল্লার ঘটনার পর থেকেই বলে এসেছি, এর পেছনে কোনো চক্রান্ত রয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের কোনো লোক এ কাজ করতে পারেন না। দেশের কয়েকটি স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনায় গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা জিজ্ঞাসাবাদে কিছু নাম বলেছে।

নোয়াখালীর ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এমন নামও শুনবেন, যারা আপনাদের খুবই পরিচিত ব্যক্তি। কুমিল্লার ঘটনায়ও সে রকম নাম আসছে। রংপুরেও একই। তবে আমরা শতভাগ নিশ্চিত হয়ে আপনাদের সামনে নাম প্রকাশ করব।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সেখানে বিএনপি-জামায়াত আছে কিনা, সেটি এখনই বলতে চাচ্ছি না। আমরা নিশ্চিত হয়েই আপনাদের জানাতে চাই। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের জবানবন্দি নেওয়া হচ্ছে। শিগগিরই সেই ইন্ধনদাতাদের নাম প্রকাশ করা হবে।

চাঁদপুর ও রংপুরের সহিংসতায় ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের নামও এসেছে- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মন্ত্রী বলেন, অপরাধীকে অপরাধী হিসেবে দেখা হয়, এখানে রাজনৈতিক পরিচয় নেই।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নের কথা তুলে ধরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তিনি বলে গেছেন এদেশ সবার, এদেশে ধর্মের নামে বৈষম্য হবে না। এদেশ হবে ধর্ম নিরপেক্ষ। আমরা সে আদর্শই ধারণ করে চলেছি। আমি দেখেছি হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান সবাই যার যার ধর্ম পালন করে আসছেন। অথচ পূজামণ্ডপে কে বা কারা কোরআন শরিফ রেখে দিয়ে সহিংস ঘটনার মাধ্যমে একটা বিব্রতকর এবং উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। শুরুতেই ধরে নিয়েছিলাম, যে কোরআন শরিফ রেখে দিয়েছে, সে অন্য কোনো এক জায়গা থেকে এসেছে। আমরা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছিলাম। পুলিশের সব পর্যায়ের টিম সেখানে পাঠিয়েছিলাম, যাতে প্রকৃত ঘটনা উদ্ঘাটন হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশকে অস্থিতিশীল করতে সহিংসতার মাধ্যমে একটি মহল সুপরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করেছে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেখানে মাল্টি ইন্টারেস্ট কাজ করে। মাদক ছাড়াও ১১ লাখ রোহিঙ্গা নিজেদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। তা ছাড়া যারা রোহিঙ্গাদের জোর করে এদেশে পাঠিয়েছে, তাদেরও ইন্ধন থাকতে পারে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পের চারদিকে বেড়া তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে এবং বেড়া তৈরি শেষ হলে পরিস্থিতি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইন মন্ত্রণালয়কে কিছু আইন স্পষ্টকরণ করতে বলা হয়েছে। তাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে জাতীয় পরিচয়পত্রের কাজ শুরু করতে দেরি হচ্ছে।


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com