শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » বিনােদন » পরীমণির বিরুদ্ধে ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে’ মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে: আইনজীবী


পরীমণির বিরুদ্ধে ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে’ মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে: আইনজীবী




ফটো নিউজ ২৪ : 31/08/2021


-->

চিত্রনায়িকা পরীমণির বিরুদ্ধে ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে’ মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তার আইনজীবী মজিবুর রহমান।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে তিনি এই কথা বলেন।

মজিবুর রহমান আদালতে বলেন, ‘উদ্ধার করা কথিত মাদক আসলে কোনো মাদক নয়। পরীমণিকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে আটক করার জন্য মাদকের কথা বলা হয়েছে। সুতরাং মহানগর দায়রা জজ আদালতের এ মামলায় জামিন দেওয়ার এখতিয়ার রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘পরীমণি ২৬ দিন ধরে কারাগারে আছেন। তিনি একজন চিত্রনায়িকা। জামিন পেলে তিনি পালিয়ে যাবেন না। যেকোনো শর্তে তাকে জামিন দেওয়া হোক।’

এসময় রাষ্ট্রপক্ষে মহানগর পিপি আবদুল্লাহ আবু বলেন,‘ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিদেশি মদ তার বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এলএসডি, আইস খুব ভয়াবহ মাদক। তার বাসা থেকে ১৮.৫ লিটার মদ পাওয়া গেছে। তার জামিন নামঞ্জুর করা হোক।’

উভয় পক্ষের বক্তব্য শোনার পর পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল না হওয়া পর্যন্ত পরীমণির জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি তাপস পাল সাংবাদিকদের জানান, শুনানি শেষে ২০ হাজার টাকা মুচলেকায় পুলিশ প্রতিবেদন না হওয়া পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেছেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ।

অন্য মামলা না থাকায় মুক্তিতে আইনগত কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন পরীমণির আইনজীবী।

পরীমণির জামিননামা পৌঁছে গেছে কাশিমপুর কারাগারে।ওই কারাগারেই রয়েছেন নায়িকা পরীমণি।

এরআগে, গত ৪ আগস্ট রাতে ঢাকার বনানীর ১২ নম্বর রোডের বাসায় অভিযান চালিয়ে পরীমণিকে আটক করে র‌্যাব। পরদিন তার বিরুদ্ধে বনানী থানায় মাদক আইনে মামলা হয়। জব্দ তালিকায় পরীমণির বাসা থেকে ‘মদ এবং আইস ও এলএসডির মতো মাদকদ্রব্য’ উদ্ধার দেখানো হয়।

তিন দফায় সাত দিন রিমান্ডের পর উচ্চ আদালতের হস্তক্ষেপে গ্রেপ্তারের ২৬ দিন পর জামিন পেলেন তিনি।

এ পর্যায়ে এ মামলায় তিন দফায় সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে পরীমণিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিআইডি। তৃতীয় দফা রিমান্ড শেষে গত ২১ আগস্ট পরীমণিকে আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠান।

পরদিন পরীমণির পক্ষে জামিন আবেদন করা হলে মহানগর দায়রা জজ আদালত শুনানির জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দিন রাখেন। এরপর আরেক আবেদনে ‘দ্রুত শুনানির’ আর্জি জানান তার আইনজীবী মজিবুর রহমান।

এতে সাড়া না পেয়ে গত ২৫ আগস্ট হাইকোর্টে আবেদন করেন তিনি। সেখানে রুল জারির পাশাপাশি পরীমণির জামিনের আবেদনও করা হয়।

পরদিন হাইকোর্ট জামিন না দিয়ে মহানগর আদালতের প্রতি রুল জারি করেন। আদেশের অনুলিপি পাওয়ার দুই দিনের মধ্যে পরীমণির জামিন আবেদনের শুনানি করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। পাশাপাশি ২২ আগস্ট পরীমণি জামিন অবেদন করার পর নির্ধারিত শুনানির জন্য দিন রাখার আদেশ কেন বাতিল করা হবে না, তাও জানতে চান হাইকোর্ট। ১ সেপ্টেম্বর রুল শুনানির তারিখ রেখে মহানগর দায়রা জজ আদালতকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

সেদিন উচ্চ আদালত বলেন, জামিন আবেদনের বিষয়ে নিম্ন আদালত রীতিনীতির বাইরে গিয়ে আদেশ দিয়েছে। ২১ দিন পর শুনানির দিন ঠিক করা আবেদনটি খারিজ করার শামিল।


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com