মঙ্গলবার , ১৪ জুলাই ২০২০


করোনার জিনোম সিকোয়েন্স উদঘাটন করেছে বাংলাদেশ




ফটো নিউজ ২৪ : 12/05/2020


-->

করোনার জিনোম সিকোয়েন্স উদঘাটন করেছে বাংলাদেশ।

চীন বা ইউরোপের সাথে এ দেশের ভাইরাসের চরিত্রগত কোনো পরিবর্তন হয়েছে কিনা? সব প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে জিনোম সিকোয়েন্সিং।

মঙ্গলবার চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশন এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, তারাই সর্বপ্রথম এ জিনোম সিকোয়েন্সের কাজ শেষ করেছে। এর ফলে ভাইরাসটির গতি প্রকৃতি নির্ণয় করতে পারবেন গবেষকরা।

ঢাকা শিশু হাসপাতালে চাইল্ড রিসার্চ ফাউন্ডেশনের গবেষক ডক্টর সেঁজুতি সাহার নেতৃত্বে আজ করোনার জিনোম সিকোয়েন্স উদঘাটনের কাজ শেষ হয়।

চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ড. সমীর কুমার সাহা জানান, ‘জিনোম সিকোয়েন্স ভাইরাসটির গতি, প্রকৃতি ও ধরণ সম্পর্কে আমাদের পরিষ্কার ধারণা দেবে। এর ফলে আমরা জানতে পারবো আমাদের এখানে ভাইরাসটি মোকাবেলায় কোন ধরনের ভ্যাকসিন বা ওষুধ প্রয়োগ করতে হবে।’

গত চার দিন ধরে তার গবেষক টিম করোনার জিন রহস্য উন্মোচনে কাজ শুরু করে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আজ কিছু সময় আগে সেই কাজ সম্পন্ন হয়েছে।’

 

পরের ধাপের করোনা ভাইরাসের আরো স্ট্রেন নিয়েও তার গবেষক টিম কাজ করছে।

চাইল্ড রিসার্চ ফাউন্ডেশনের পরিচালক সমীর সাহা

এর আগে, করোনাভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্সের গুরুত্ব সম্পর্কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় করোনাভাইরাস রেসপন্স টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. শরীফ আখতারুজ্জামান বলেন, ‘এখন পর্যন্ত মোটাদাগে নভেল করোনাভাইরাসের ৩টি ধরনের কথা জানা গেছে। বাংলাদেশে কোনো ধরনটি প্রভাব বিস্তার করছে বা মিউটেশনের মাধ্যমে নতুন কোনো ধরন সৃষ্টি হয়েছে কিনা সেটি জানাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা নিয়ে আমরা ব্যাকগ্রাউন্ডে কাজ করছি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিরিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মুশতাক ইবনে আয়ূব বলেন, ‘একটি ভাইরাস কতটুকু শক্তিশালী, তার সংক্রমণ ক্ষমতা কতটুকু জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের মাধ্যমে এ সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে।’

‘‘পাশাপাশি, ভাইরাসটি কোনো ভৌগলিক পরিবেশে নতুন কোনো বৈশিষ্ট্য অর্জন করেছে কিনা সে সম্পর্কেও ধারণা পাওয়া যাবে এর মাধ্যমে।’’

বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়। করোনায় প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ। মঙ্গলবার পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ হাজার ৬৬০। এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ২৫০। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিন হাজার ১৪৭ জন।


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com