বৃহস্পতিবার , ৯ জুলাই ২০২০


করোনা উপসর্গ নিয়ে রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশের চেষ্টা




ফটো নিউজ ২৪ : 10/04/2020


-->

কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফ সীমান্তের কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে করোনা উপসর্গ নিয়ে কিছু রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশের খবরে রাত জেগে পাহাড়া দিয়েছে স্থানীয় গ্রামবাসী।

এসব রোহিঙ্গা মিয়ানমারের নাইচর্ড এলাকায় অপেক্ষা করছে। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) রাত ১০ টা থেকে উখিয়ার পালংখালী ও টেকনাফের হোয়াইক্যং সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় স্থানীয়রা মসজিদের মাইকে প্রচার করে গ্রামবাসীদের জড়ো করেন। তারা বিজিবি সদস্যদের সাথে সীমান্ত পাহাড়ায় গ্রামবাসীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। এসময় শত শত গ্রামবাসী পালংখালী ইউনিয়নের আনজুমান পাড়া, রহমতের বিল, ধামনখালী, বালুখালী ও টেকনাফের উলুবনিয়া, খারাইংগাঘোনা সীমান্তে রাতভর পাহাড়া বসায়।

টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি হারুনর রশিদ সিকদার জানান, নাফ নদীতে মাছ শিকারে যাওয়া কতিপয় জেলের মাধ্যমে এলাকাবাসী জানতে পারে যে, করোনা উপসর্গ ১০/১২ জনের একটি রোহিঙ্গা দলকে বহন করে নিয়ে আসা আরো কিছু রোহিঙ্গা মিয়ানমার সীমান্তের নাইচডং এলাকায় অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে। করোনা উপসর্গদের চেয়ারে বসিয়ে রাখা হয়েছে। তারা আপাতত হাটতে পারছেননা। মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) তাদেরকে বাধা দিচ্ছে না। এখবর ছড়িয়ে পড়লে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে এলাকাবাসীকে পাহারা দিতে আহবান জানানো হয়।

পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পালংখালী ইউনিয়নের আনজুমান পাড়া সীমান্তের ওইপারে মিয়ানমারে কয়েকশত রোহিঙ্গাকে অবস্থান করতে দেখে এইপাড়ের জেলেরা। পরে জানা যায়, সেখানে কিছু সন্দেহজনক করোনা রোগী এদেশে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে। তারা চিকিৎসার জন্য উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আসতে চাচ্ছে। এখবর ছড়িয়ে পড়লে শত শত এলাকাবাসী জড়ো হয়ে বিজিবি সদস্যদের সাথে সীমান্তে পাহাড়া দিতে থাকে। করোনা রোগীর অনুপ্রবেশের খবরে সীমান্তের লোকজন আতংকিত হয়ে পড়ে।

পালংখালীর ইউপি মেম্বার সুলতান আহমদ, মেম্বার তার ফেজবুক ফেইজে লিখেন, মিয়ামনার থেকে করোনা আক্রানন্ত প্রায় ১০০/১৫০ রোহিঙ্গা পরিবার উখিয়া ও টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছেন বলে দাবি করেছেন। তিনি উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউপির ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য। এছাড়া হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জ এসআই মশিউর রহমান তার ফেজবুক ফেইজে সতর্ক রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। এসময় মিয়ানমার থেকে যাতে কোন লোক সীমান্ত অতিক্রম করে অনুপ্রবেশ করতে না পারে সে ব্যাপারে এলাকাবাসীকে সতর্ক করেন।

কক্সবাজার বিজিবি ৩৪ ব্যাটেলিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ সাংবাদিকদের জানান উখিয়া সীমান্ত দিয়ে রোহিঙ্গাদের একটি দল বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের বিষয়টি শুনেছি, আঞ্জুমানপাড়া সীমান্তে বিজিবি সতর্ক অবস্থানে রয়েছে জানিয়ে বলেন নতুন করে কোন অবৈধ অনুপ্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

বিজিবি টেকনাফের হোয়াইক্যং বিওপির কোম্পানী কমান্ডার জানান, বিষয়টি অবগহত হয়ে ওই সীমান্তে টহল জোরদার করা হয়েছে। এছাড়াও টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম সাইফ বিষয়টি শুনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ২৫ আগস্টের পর উখিয়া-টেকনাফের যেসব সীমান্ত দিয়ে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ঢল নামে তার মধ্যে উখিয়ার আঞ্জুমান পাড়া ও টেকনাফের উলুবনিয়া অন্যতম।


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com