শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » খেলা » ক্রিশমার সান্তোকির দুটি ডেলিভারি নিয়ে উঠেছে বিতর্কের ঝড়!


ক্রিশমার সান্তোকির দুটি ডেলিভারি নিয়ে উঠেছে বিতর্কের ঝড়!




ফটো নিউজ ২৪ : 13/12/2019


-->

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্রথম ম্যাচই নজর কেড়েছে ক্রিকেট বিশ্বের, তবে সেটা বিতর্কিত কারণে! ক্রিশমার সান্তোকির দুটি ডেলিভারি নিয়ে উঠেছে বিতর্কের ঝড়। ক্রিজের প্রায় বাইরে পড়ে হওয়া ‘ওয়াইড’ ও দুই বল পর বোলিং সীমানার কয়েক ইঞ্চি বেরিয়ে ‘নো বল’ জন্ম দিয়েছে প্রশ্নের। সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে বিসিবিকে অনুরোধ জানিয়েছেন সিলেট থান্ডারের টিম ডিরেক্টর তানজিল চৌধুরী।

বঙ্গবন্ধুর নামে ‘বিশেষ’ এই বিপিএলে নেই কোনও ফ্র্যাঞ্চাইজি। বোর্ডই সব দলের দেখভাল করছে। এজন্য বিসিবি সাত দলে সাত বোর্ড পরিচালককে নিয়োগ দিয়েছে, যারা টিম স্পন্সরের সঙ্গে মিলে চালাচ্ছেন দল। সিলেটের টিম ডিরেক্টর হিসেবে আছেন তানজিল চৌধুরী। তার দলের ক্যারিবিয়ান পেসার সান্তোকির ডেলিভারি নিয়েই সন্দেহ তৈরি হয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের।

তানজিল নিজেও সন্দেহের গন্ধ পাচ্ছেন। এজন্য বোর্ডকে অনুরোধ জানিয়েছেন তদন্তের। ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ‘ক্রিকবাজ’কে এই বোর্ড পরিচালক বলেছেন, ‘তার (সান্তোকি) করা নো বলটি সন্দেহজনক। তাকে এখনও বোর্ড থেকে ডাকা হয়নি, তবে আমি অভিযোগ করেছি (বিসিবির কাছে)। মৌখিকভাবে প্রধান নির্বাহী (নিজামউদ্দিন চৌধুরী) ও মোরশেদকে (বিসিবি অ্যান্টি-করাপশন প্রধান) তদন্ত করতে বলেছি বিষয়টির (নো বলের)।’

সিলেটের একাদশে সান্তোকির অন্তর্ভুক্তির বিষয়টি জানেন না তানজিল। কেন, তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন এভাবে, ‘একাদশ গঠন নিয়ে আমরা (বিসিবি পরিচালক) কিছুই করছি না। বিষয়টির পুরোটাই দেখছে টিম ম্যানেজমেন্ট ও কোচ। আমি টিম স্পন্সরদের জিজ্ঞেস করেছিলাম, তারা একাদশ নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করছে কিনা, যদিও তারা কোনও কিছু বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।’

সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘এখন আমরা টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে কথা বলব এবং জানার চেষ্টা করব সান্তোকিকে খেলানোর জন্য কেউ প্রভাবিত করেছে কিনা, কারণ এটা (নো বল) স্পট ফিক্সিংয়ের মতোই লেগেছে।’

তানজিলের সন্দেহের তীর কিন্তু স্পন্সর প্রতিষ্ঠান জিভানি ফুটওয়ার কোম্পানির দিকে। কারণ নভেম্বরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে তার ও দলের উপদেষ্টা সারোয়ার ইমরানের সঙ্গে মতানৈক্য হয়েছিল স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের। সেই বিষয়টি সামনে এনে তানজিল বলেছেন, ‘প্লেয়ার্স ড্রাফটের দিন আমাদের বেশ কয়েকটি জায়গায় মতবিরোধ হয়েছিল। কয়েকটি সিদ্ধান্তে আমি ও ইমরান একমত হয়েছিলাম। স্পন্সর প্রতিষ্ঠান কয়েকজন ক্রিকেটারকে নেওয়ার জন্য জোরাজুরি করছিল, কিন্তু আমরা বুঝছিলাম না তারা কেন ওই সব ক্রিকেটারকে দলে নিতে চাইছে।’

সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘আমাদের মোহাম্মদ নাঈম ও অন্য আরও কয়েকজন খেলোয়াড়কে নেওয়ার সুযোগ ছিল। কিন্তু তারা (স্পন্সর প্রতিষ্ঠান) সোহাগ গাজী ও সান্তোকিকে নেওয়ার পক্ষে ছিল। এই কারণেই তাদের (স্পন্সর) নিয়ে আমাদের সন্দেহ তৈরি হয়েছে। আমি বিসিবি গভর্নিং কাউন্সিল সদস্যদের ও বিসিবি প্রধানকে বিষয়টি জানিয়েছি।’

বুধবার বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল সিলেট থান্ডার ও চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। এই ম্যাচে চট্টগ্রামের ইনিংসে তখন চলছিল দ্বিতীয় ওভার। বাঁহাতি সান্তোকির বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে ছিলেন ডানহাতি অভিষ্কা ফার্নান্ডো। ক্যারিবীয় এই পেসার তৃতীয় ডেলিভারিতে লেগ সাইডে দিয়েছিলেন অবিশ্বাস্য ওয়াইড।

সান্তোকির বল পিচ করে লেগ স্টাম্পের প্রায় দুই হাত বাইরে! নিশ্চিত বাই চার ঠেকিয়ে দেন উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ মিঠুন। নিজের বিপরীত পাশে ঝাঁপিয়ে বল গ্লাভসবন্দি করেন তিনি। ওই ওয়াইড মাঠে উপস্থিত সবার কাছেই লেগেছিল হাস্যকর। এরপর পঞ্চম ডেলিভারিতে যে ‘নো বল‘টি করলেন, সেটি এককথায় অবিশ্বাস্য। আম্পায়ার ‘নো’ ডাকার পর জায়ান্ট স্ক্রিনে সান্তোকির পা দেখে দর্শকদের চোখ কপালে। কেননা পপিং ক্রিজ পেরিয়ে ডেলিভারির সময় সান্তোকির পা পড়ে প্রায় এক হাত দূরে!


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com