বৃহস্পতিবার , ১০ অক্টোবর ২০১৯


অল্প বয়সে চুল পাকার কারণ




ফটো নিউজ ২৪ : 22/09/2019


-->

সম্ভবত কেউই চাইবে না যে চুল তার স্বাভাবিক রং হারিয়ে সাদা বা ধূসর হয়ে যাক, কিন্তু তারপরও বিভিন্ন কারণে চুল তার স্বাভাবিক রঙ হারিয়ে ফেলে।

আমরা জানি যে বুড়োকালে চুল পেকে যায় বা সাদা হয়ে যায়- এর সঙ্গে মেলানিনের যোগসূত্র রয়েছে। মেলানিন হলো একটি রঞ্জক যা চুলকে প্রাকৃতিক বা স্বাভাবিক রঙ দেয়, কিন্তু বয়স বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মেলানিন উৎপাদন হ্রাস পেতে থাকে।

একজন মানুষের বয়স ৩০ বছরের পর থেকে প্রত্যেক দশকে চুল সাদা হয়ে যাওয়া বা স্বাভাবিক রঙ হারিয়ে ফেলার ঝুঁকি ১০ থেকে ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়, এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকার কারণে বুড়ো মানুষদের চুল সাদা/ধূসর হয়ে যায়, লাইব্রেরি অব কংগ্রেসের প্রতিবেদন অনুসারে।

কিন্তু অনেকের চুল অকালে অথবা অল্প বয়সে অথবা বয়স্ককালের আগেই স্বাভাবিক রঙ হারাতে থাকে। কিন্তু কেন এমনটা হয়?

এ বিষয়ে আপনাকে জানাতে এ প্রতিবেদনে অল্প বয়সে বা স্বাভাবিক সময়ের আগে চুল সাদা হওয়ার ৬টি কারণ আলোচনা করা হলো।

* আপনার মা-বাবার চুল অকালে সাদা হয়েছে

আপনি এটা ভেবে আশ্চর্য হচ্ছেন যে এত অল্প বয়সে আপনার চুল সাদা হয়ে যাচ্ছে কেন? আপনার কালো চুল অল্প বয়সে সাদা হতে শুরু করার অন্যতম কারণ হলো, আপনার পিতা অথবা মাতার চুলও অকালে সাদা হয়েছে। নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটি ল্যানগোন মেডিক্যাল সেন্টারের সহযোগী অধ্যাপক ও ফরগেট দ্যা ফেসলিফটের লেখক ডরিস ডে বলেন, ‘জিনগত কারণেও আপনার কালো চুল অকালেই ধূসর বা সাদা হতে পারে। গবেষকরা ৬,০০০ ল্যাটিন আমেরিকানের সাদা চুল নিয়ে গবেষণা করে এ বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন। এ গবেষণাটি নেচার কমিউনিকেশন্সে প্রকাশিত হয়েছে।’ তাই আপনার চুল নির্দিষ্ট সময়ের আগেই সাদা হয়ে যাওয়ার জন্য আপনার মা-বাবাকে দায়ী ভাবতে পারেন, যদি তাদের চুলও অকালে স্বাভাবিক রঙ হারিয়ে থাকে।

* আপনার অটোইমিউন কন্ডিশন রয়েছে

অ্যালোপেসিয়া এরিয়াটা নামক অটোইমিউন ত্বক রোগও সাদা চুলের কারণ হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল অ্যালোপেসিয়া এরিয়াটা ফাউন্ডেশনের মতে, এ কন্ডিশনের লোকদের মাথার ত্বকে ছোট, গোলাকার ও মসৃণ প্যাচ ডেভেলপ হয়- অর্থাৎ আক্রান্ত স্থান থেকে চুল পড়তে পড়তে মাথায় ছোট ও গোলাকার টাক পড়ে, যাকে স্পট বাল্ডনেস বলে। এ রোগে সম্পূর্ণ মাথা টাক হয়ে যেতে পারে। ডা. ডে বলেন, ‘একজন মানুষের ইমিউন সিস্টেম তার চুলের গ্রন্থিকোষকে আক্রমণ করলে অ্যালোপেসিয়া এরিয়াটা বিকশিত হয়, যার ফলে চুল পড়ে যায়। টেকো স্থানে পুনরায় চুল গজালে তা সাধারণত সাদা হয়ে থাকে।’ আপনার মাথা থেকে দুশ্চিন্তা করার মতো হারে চুল পড়তে থাকলে অথবা স্থানে স্থানে টাক হলে ডার্মাটোলজিস্টের সঙ্গে কথা বলুন।

* আপনার পরিবেশ দূষিত

পরিবেশ দূষণকারী পদার্থ অথবা টক্সিন আপনার চুলকে অল্প বয়সেই সাদা করতে পারে, লাইব্রেরি অব কংগ্রেসের প্রতিবেদন অনুসারে। এসব কেমিক্যাল ফ্রি র‍্যাডিকেল উৎপাদন করতে পারে অথবা অক্সিডেটিভ স্ট্রেসের কারণ হতে পারে, যা মেলানিন উৎপাদনে বিঘ্ন ঘটায় ও চুলের বুড়িয়ে যাওয়া দ্রুত করে, বিভিন্ন গবেষণা অনুযায়ী। ডা. ডে বলেন, ‘গ্রন্থিকোষ থেকে চুল বেরিয়ে পড়ার পর তাতে আর প্রাণ থাকে না, মূলত চুলের গ্রন্থিকোষে কেমিক্যালের সংস্পর্শই চুলকে সাদা করে তোলে। পরিবেশগত সমস্যা ছাড়াও আরেকটি ফ্যাক্টর চুল সাদাকরণে আরো বেশি প্রভাব ফেলে এবং তা হলো স্ট্রেস বা মানসিক চাপ অথবা দুশ্চিন্তা।’

* আপনি সুপার স্ট্রেসে আছেন

বারাক ওবামা যখন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন তখন তার চুল কালো ছিল, কিন্তু পাঁচ বছর পর তার চুল সম্পূর্ণ সাদা হয়ে গেছে। বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন যে, ওবামার চুলের এ নাটকীয় পরিবর্তনের কারণ হলো সুপার স্ট্রেস বা অত্যধিক মানসিক চাপ। ডা. ডে বলেন, ‘স্ট্রেস বা মানসিক চাপ জেনেটিক ডেসটিনি দ্রুত করে- অর্থাৎ আপনার জিনের কপালে অকালে চুল সাদা হওয়ার কথা লেখা না থাকলে, স্ট্রেস আপনার চুলকে অল্প বয়সে সাদা নাও করতে পারে; কিন্তু আপনার জিনের কপালে স্বাভাবিক সময়ের একটু আগে চুল সাদা হওয়ার কথা উল্লেখ থাকলে স্ট্রেস এ পরিণতিকে আরো দ্রুত করতে পারে।’ আরো সহজভাবে বলতে গেলে, স্ট্রেসের কারণে চুল সাদা হওয়ার প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হলে তরুণ বয়সেই আপনার চুল সাদা হতে পারে।

* আপনি ও আপনার পরিবারের সদস্যরা ধূমপান করেন

আপনার চুল অকালে সাদা হওয়ার পেছনে আপনার পরিবারে সংঘটিত ধূমপানও দায়ী হতে পারে। আপনি অথবা আপনার পরিবারের সদস্যরা ধূমপান করলে তা চুলের রঙকে প্রভাবিত করতে পারে। ২০১৩ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় পাওয়া যায়, ধূমপায়ীদের চুল অকালে সাদা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ধূমপানে অনভ্যস্ত লোকদের তুলনায় ২.৫ গুণ বেশি, এর কারণ সম্ভবত এটা- সিগারেটের আগুন প্রচুর পরিমাণে ফ্রি র‍্যাডিকেল উৎপাদন করতে পারে। তাই অল্প বয়সেই নিজেকে বুড়োদের মতো দেখলে না চাইলে ধূমপান বর্জনের কথা ভাবুন।

* আপনার হরমোনের মাত্রা পরিবর্তিত হচ্ছে

আপনার এক দশক আগের ছবি আর বর্তমানের ছবি দেখে বিস্মিত হলেন- এ সময়ের মধ্যে কালো চুল সাদা হলো কিভাবে? অল্প বয়সে চুল সাদা হওয়ার পেছনে হরমোনের মাত্রায় সংঘটিত পরিবর্তনেরও ভূমিকা থাকতে পারে। হরমোনের মাত্রায় পরিবর্তন সময় পরিক্রমায় চুলের গঠন, ঘনত্ব ও রঙে পরিবর্তন আনতে পারে। ডা. ডে বলেন, ‘এ প্রক্রিয়ার সূচনা সবচেয়ে বেশি হয় বয়স ৩০ এর দিকে। এ বয়সে এ ধরনের সমস্যা নিয়ে কম বয়সী লোকেরা চিকিৎসকের কাছে যান।’ তিনি আরো বলেন, ‘বিশেষজ্ঞরা এখনো এটা বোধগম্য হওয়ার চেষ্টা করছেন যে হরমোন (যেমন- ইস্ট্রোজেন, প্রোজেস্টেরন ও করটিসল) কিভাবে চুল সাদাকরণে প্রভাব ফেলে।’ হরমোনগত পরিবর্তন চুল সাদা হওয়ার প্রক্রিয়াকে বিলম্বিতও করতে পারে। মাসিক চক্র বন্ধের প্রক্রিয়ায় থাকা এমনও পঞ্চাশোর্ধ্ব নারী রয়েছে যাদের একটি চুলও সাদা হয়নি। আপনার চুল বুড়ো বয়সের আগেই সাদা হবে কি হবে না তা মাথার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ট্রাইফেক্টা ইভেন্টের ওপর নির্ভর করতে পারে: বংশগত ফ্যাক্টর, পরিবেশগত ফ্যাক্টর ও হরমোনগত পরিবর্তন।

তথ্যসূত্র : দ্য হেলদি


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com