বৃহস্পতিবার , ১৫ নভেম্বর ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার একটি পানশালায় বন্দুকধারীরে গুলিতে অন্তত ১২ জন নিহত


যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার একটি পানশালায় বন্দুকধারীরে গুলিতে অন্তত ১২ জন নিহত




ফটো নিউজ ২৪ : 08/11/2018


-->

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার থাউস্যান্ড এলাকায় একটি পানশালায় বন্দুকধারীরে গুলিতে এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছেন।

এ সময় বন্দুকধারীর মৃতদেহও উদ্ধার করা হয়েছে।

৭ নভেম্বর, বুধবার স্থানীয় সময় রাত ১১টা ২০ মিনিটের দিকে থাউস্যান্ডের ওকসে এ ঘটনা ঘটে। এতে ১০ জন আহত হয়েছেন।

এ ছাড়াও বেশ কয়েকজন আহত ব্যক্তি হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইন স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে ৪০ মাইল উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত এই পানশালার ভেতর হামলার সময় অন্তত ২০০ মানুষ ছিল। একটি সংগীতানুষ্ঠান চলার সময় এই হামলা চালানো হয়।

 

পুলিশ পানশালার ভেতর থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করেছে। তারা ধারণা করছে, বন্দুকধারী নিজেই নিজের গুলিতে নিহত হয়েছেন।

তবে বিষয়টি নিশ্চিত নয়।

নিহত পুলিশ কর্মকর্তা হলেন রন হেলুস। নিহত অপর ১১ জনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

তবে বুধবার রাতের ওই স্থানীয় সংগীতানুষ্ঠান স্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে খুব জনপ্রিয়।

 

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সন্দেহভাজন ব্যক্তির মৃতদেহ পানশালার ভেতর থেকে উদ্ধার করা হলেও তার পরিচয় এবং হামলার ঘটনার কারণ নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ঘটনার পর স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, আহত ব্যক্তিদের তার বন্ধুরা ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন।

সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তি কালো পোশাক পরে পানশালায় ঢুকে অতর্কিত গুলি চালান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তি প্রথমে একটি স্মোক গ্রেনেড ছোড়েন এবং পরে আধা-স্বয়ংক্রিয় বন্দুক দিয়ে গুলি চালান।

স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল কেটিএলএ-কে এক আহত ব্যক্তি বলেন, ‘আমরা ফ্লোরে শুয়ে পড়েছিলাম। তখন আমরা অনেক চিৎকার শুনছিলাম।

আমার বন্ধু ডিজে ছিল। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে সে গান বন্ধ করে দেয়। এ সময় ভেতরে খুব হাঙ্গামা চলছিল।’

ঘটনার সময় ভেতরে থাকা টেইলর নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‘আমি ড্যান্স ফ্লোরে ছিলাম এবং হঠাৎ গুলির শব্দ শুনি।

এ সময় পেছনে ফিরে দেখি সবাই চিৎকার করে বলছে, নিচে নামো।’

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ভেতরে থাকা লোকজন চেয়ারের সাহায্যে পানশালার জানালা ভেঙে বাইরে বেরিয়ে আসেন।

অনেকে আবার পানশালার টয়লেটে আশ্রয় নিয়েছিলেন।

 

স্থানীয় ভেঞ্চুরা কান্টি শেরিফ জিওফ ডেন পানশালার ভেতরের দৃশ্য বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন, ‘ভেতরের অবস্থা খুবই ভয়াবহ এবং সবখানে রক্ত লেগে ছিল।’

তিনি বলেন, ‘ইমার্জেন্সি কল পাওয়ার তিন মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছান ভেঞ্চুরা শেরিফ সার্জেন্ট রন হেলুস। তিনি পানশালার ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করেন। এ সময় তাকে বেশ কয়েকবার গুলি করা হয়। পরে হাসপাতালে তিনি মারা যান।

রন ২৯ বছর ধরে পুলিশে চাকরি করছিলেন। আগামী বছর তার অবসরে যাওয়ার কথা ছিল। তার স্ত্রী ও এক সন্তান আছে।’

শেরিফ জিওফ ডেন বলেন, ‘তার মৃত্যু আমাদের সবাইকে শোকাহত করে ফেলেছে এবং আমাদের আবেগাপ্লুত করেছে।

তার মৃত্যু নায়কোচিত। তিনি জীবন রক্ষা করতে গিয়েছিলেন, অন্য মানুষকে বাঁচাতে গিয়েছিলেন।’

 

-এ


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: [email protected]

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: [email protected]