বৃহস্পতিবার , ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮


ডেঙ্গুতে ফ্যাকাশে অদ্রিতার জীবনের আলো




ফটো নিউজ ২৪ : 24/09/2018


-->

নিউজ ডেস্ক : ভোরের আভায় চোখে-মুখে যেন উচ্ছ্বাসের ছটা। হাসপাতালের বিছানা থেকে মুক্তি মিললেই খেলার মাঠে আলো ছড়াবে অদ্রিকা। কিন্তু নিদারুণ যন্ত্রণায় সব আলো যেন ফ্যাকাশে হয়ে আছে তার। চোখ লাল, দুর্বল শরীর, হাতে ক্যানোলা। প্রায় অনাহারে থাকা শিশুটি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালের বেডে শুয়ে কাতরাচ্ছে। সর্বনাশা ডেঙ্গু অদ্রিতার সব সুখ যেন কেড়ে নিয়েছে।

রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়। ভিকারুন্নেসা স্কুলের ইংরেজি মাধ্যমের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে অদ্রিতা। গত বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয় সে। ২২ সেপ্টেম্বর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল রোববার দুপুরের পর সেখানে গিয়ে দেখা যায়, অদ্রিতার মা তাকে কিছু খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু সে খেতে চাচ্ছে না। কান্না আসছে কিন্তু কাঁদতে পারছে না।

অদ্রিতার মা জানান, মাঝে হঠাৎ প্রচুর গরম পড়েছিল। বাসায় এসি ছেড়ে মশারি না টানিয়েই ঘুমাতে বাধ্য হয়েছি। ফলও পেলাম। ফুলের মতো ফুটফুটে মেয়েটা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলো।

একই হাসপাতালের পুরুষ ওয়ার্ডে গিয়ে ডেঙ্গু রোগী ইসমাইল হোসেনের দেখা মেলে। বয়স ৩১। রাজধানীর মিরপুরে বাসা। একটি বেসরকারি হাসপাতালে চাকরি করেন। এখন তিনি নিজেই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে ভর্তি। গত এক সপ্তাহ ধরে এখানে, এর আগে ছিলেন আরেকটি বেসরকারি হাসপাতালে। সেখানে ‘তেমন ভালো’ চিকিৎসা না পেয়ে এখানে আসা।

ইসমাইল হোসেন বলেন, প্লাটেলেট (অণুচক্রিকা) অনেক কমে গিয়েছিল। চিকিৎসকদের পরামর্শে চার ব্যাগ রক্ত দিয়েছি। এখন প্লাটেলেট বেড়েছে, কিন্তু পেট ফুলে গেছে। বসে থাকতে কষ্ট হয়। বাধ্য হয়ে শুয়ে আছি, শরীরে ব্যথাও আছে। দু-তিনদিন জ্বর আসেনি। তবে একেবারেই দুর্বল হয়ে পড়েছি।

জানা গেছে, হাসপাতালটিতে বর্তমানে ১৮ জন বিভিন্ন বয়সী ডেঙ্গু রোগী ভর্তি আছেন। প্রতিদিনই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী আসছেন। তবে রোববার মাত্র একজন রোগী ভর্তি হয়েছেন।

হাসপাতালটিতে ডেঙ্গু নিয়ে রিপোর্ট করেন অফিস সহকারী নজরুল ইসলাম। তিনি বলেন, এ বছর ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। বৃষ্টি শুরুর পর থেকে সাধারণত এ রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। এ বছরের জুনে হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন ৫০ জন, জুলাইয়ে ৭৩ জন, আগস্টে সেটা বেড়ে দাঁড়ায় ৯০ জনে। এর মানে ওই তিন মাসে ২১৩ রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে গত জুনের ২৫ তারিখে ৭০ বছর বয়সী এক রোগী মারা যান।

এ বিষয়ে হাসপাতালের মেট্রন (সেবা, তত্ত্বাবধায়ক) গোলাপী হালদার জানান, সেপ্টেম্বরের ২৩ তারিখ পর্যন্ত ৫১ রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন এবং চিকিৎসা নিয়েছেন। জ্বর নিয়ে অনেকেই ভর্তি হন, কিন্তু আমরা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত না হলে রিপোর্টে লিপিবদ্ধ করি না। কোন রোগীর কী ধরনের সমস্যা হচ্ছে, সেটাও রিপোর্টে লিপিবদ্ধ হয়।

—- আর


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: [email protected]

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: [email protected]