বৃহস্পতিবার , ৯ জুলাই ২০২০


বাংলাদেশের এই জায়গাগুলো এতদিন নিষিদ্ধ ছিল !




ফটো নিউজ ২৪ : 26/07/2017


-->

bandarban photonews24.com

বান্দরবানের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরেছেন আপনি। রুমা, থানছি, লামার বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়িয়েছেন।

কিন্তু জানেন কি, এই সব জায়গা গুলো আসলে পর্যটন উদ্দেশ্যে ঘোরাঘুরির কোন প্রশাসনিক অনুমতি ছিল না?

 

সম্প্রতি থানছি উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এটা নিয়ে প্রশাসনিক ভাবে কাজ শুরু করলে বিষয়টি সবার নজরে আসে।

এতদিন আমিয়াখুম, ভেলাখুম, সাতভাইখুম, নাইক্ষাং মুখ, দেশের আনঅফিসিয়াল উচ্চতম পর্বত সাকাহাফং বা ত্লাংময়, দ্বিতীয় উচ্চ পর্বত জত্লাং, চতুর্থ উচ্চ পর্বত যোগী হাফং, আন্ধার-মানিক, বাদুর-গুহা ইত্যাদি এলাকায় পর্যটন করার জন্য কোন প্রশাসনিক অনুমতি ছিল না।

তারপরেও মানুষ গেছে, স্থানীয়দের সহায়তায় নিজেদের মত করে সুযোগ সুবিধা করে নিয়ে।

এখন এই জায়গাগুলোকে আনুষ্ঠানিকভাবে পর্যটন স্পট হিসেবে স্বীকৃত দেয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম।

তবে এটা নিয়ে বেশ আলোচনা তৈরি হতে দেখা যায় সামাজিক মাধ্যমে।

অনেকেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে এইসব জায়গাগুলোকে পর্যটন স্পট হিসেবে স্বীকৃতি দিলে সেটা স্থানীয় প্রাকৃতিক পরিবেশের জন্য কতটুকু উপকারী হবে।

 

পর্যটন স্পট ঘোষণা করা হলে সেখানে মানুষ চলাচল এর সুব্যবস্থা হবে, দুর্গম রাস্তাগুলো সহজ হবে।

যাতে করে প্রচুর মানুষ সেখানে যেতে পারবে এবং তাতে করে সেখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ নষ্ট হবার সমূহ আশঙ্কা রয়েছে।

আমরা বাংলাদেশিরা টুরিস্ট হিসেবে অত্যন্ত অবিবেচক। দেশের জনপ্রিয় ঝর্ণাগুলোতে পাওয়া যায় সাবানের খোসা আর শ্যাম্পুর প্যাকেট।

এছাড়া আরও নানা রকম অপচনশীল আবর্জনা দিয়ে ভরে গেছে সেই জায়গাগুলো।

সিলেটের বিখ্যাত পর্যটন স্পট বিছানাকান্দিতে পাওয়া যায় বিরিয়ানির প্যাকেট। এই সমস্ত বিষয় বিবেচনা করে বিষয়টিকে ভাল চোখে দেখছেন না অনেক পর্যটক, যারা বিভিন্ন সময় এইসব এলাকাগুলোতে গিয়েছেন।

তারা চান এই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জায়গাগুলো যেন এভাবেই থাকে।

 

আবার অন্যদিকে রয়েছে স্থানীয় মানুষদের আশা আকাঙ্ক্ষা। তারা আশা করছেন এই এলাকাগুলো টুরিস্ট স্পট হিসেবে গণ্য হলে অনেক বেশি মানুষ আসবে, তাতে করে তাদের জন্য আয় রোজগার বাড়ার সুযোগ সৃষ্টি হবে।

পর্যটন এলাকা হলে সরকার এলাকার অবকাঠামো উন্নয়নে মন দেবে। এর ফলে এলাকার জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন হবে।

অনেক কিছু নিয়েই হয়ত একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে আপনার বা আমার কিছু করার নেই। তবে আমরা যেটুকু করতে পারি তা হল, প্রাকৃতিক পরিবেশ এর সংরক্ষণ ও বিকাশ নিয়ে সচেতন হতে পারি।

 

পৃথিবীর এমন অনেক দেশই আছে, যেখানে মানুষ ও প্রকৃতি অত্যন্ত সফলতার সাথে একে অপরের সাথে সহযোগিতামুলক সম্পর্ক নিয়ে টিকে আছে।

চেষ্টা ও সচেতনতা দিয়ে একটি প্রাকৃতিক এলাকার সৌন্দর্য ধরে রাখা সম্ভব হতেই পারে।

 

-এ


-->


সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক: আবু সুফিয়ান
চেয়ারম্যান: মুসলিমা সুফিয়ান

কল: 01723-980255,01919-972103
নিউজ রুম :01710-972103
ইমেল: Photonews24@yahoo.com

১২মধ্য বেগুনবাড়ি,তেজগাঁও শিল্প এলাকা,ঢাকা -১২০৮
ইমেল: shufian707@gmail.com